35.6 C
Kolkata
Wednesday, May 25, 2022
More

    পণ্ডিত জসরাজ এর প্রয়াণ: ‘ভারতীয় সঙ্গীতের একটি বিশাল স্তম্ভ পতন’

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো: ভারতীয় শাস্ত্রীয় সঙ্গীত কিংবদন্তী পণ্ডিত জসরাজ ৯০ বছর বয়সে প্রয়াত হয়েছেন। এই প্রবাদ প্রতীম কিংবদন্তি গায়ক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে গত সোমবার, ১৭’ই আগস্ট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তাঁর নিজ বাড়িতে মারা যান।

    তিনি সাত দশকেরও বেশি সময় ধরে তার আত্মিক গায়কী দিয়ে সারা বিশ্বের দর্শকদের মুগ্ধ করেন। এই সঙ্গীত সম্রাট কিছু বলিউড চলচ্চিত্রের জন্য সঙ্গীত লিখেছেন কিন্তু তিনি বিশ্বব্যাপী ভারতীয় শাস্ত্রীয় সঙ্গীত জনপ্রিয় করার জন্য স্মরণীয় থাকবেন।

    গত মার্চ মাসে যখন ভারতে লক ডাউন ঘোষণা হয় তখন তিনি আমেরিকায় ছিলেন। তার পরিবার জানায়, ভ্রমণের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে না নেওয়া পর্যন্তই তিনি আমেরিকাতেই থাকার সিদ্ধান্ত নেন। তাঁর আকস্মিক মৃত্যুতে অনেকেই বিস্মিত হয়েছেন, যার মধ্যে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, যিনি এই শ্রদ্ধা নিবেদনের নেতৃত্ব দিয়েছেন।

    তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে নরেন্দ্র মোদী টুইট করেছেন -“পণ্ডিত জসরাজজির দুর্ভাগ্যজনক মৃত্যু ভারতীয় সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে একটি গভীর শূন্যতা রেখে যায়। তাঁর গান শুধু অসাধারণই ছিল না, তিনি আরও বেশ কয়েকজন কণ্ঠশিল্পীর কাছে একজন ব্যতিক্রমী মেন্টর হিসেবে ও একটি চিহ্ন তৈরি করেছেন। বিশ্বব্যাপী তার পরিবার এবং ভক্তদের প্রতি সমবেদনা। ওম শান্তি।

    পণ্ডিত জসরাজের সঙ্গে কাজ করা কিংবদন্তী গায়িকা লতা মঙ্গেশকর বলেন, এই সংবাদে তিনি “অত্যন্ত শোকাহত” হয়েছেন। আদনান সামি, শঙ্কর মহাদেবন এবং জাভেদ আখতার সহ অনেক গায়ক, গীতিকার, সঙ্গীতজ্ঞ তাদের শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

    বিখ্যাত গীতিকার জাভেদ আখতার টুইটারে লেখেন-” হিন্দুস্তানি সঙ্গীতের একটি বিশাল স্তম্ভ আজ পতিত হয়েছে। পণ্ডিত জসরাজের পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা রইল । আমি তাকে মঞ্চে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখতে পাচ্ছি যেন সে আমাদের সবাইকে আশীর্বাদ করছে এবং তার নরম এবং রেশমী কণ্ঠে শেষবারের মত সে জয় হো বলছে!

    পণ্ডিত জসরাজ সঙ্গীতজ্ঞদের পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা রাজকীয় আদালতে একজন কণ্ঠশিল্পী ছিলেন এবং তার দুই ভাইও সঙ্গীতজ্ঞ ছিলেন। তাঁর প্রশিক্ষণ তাড়াতাড়ি শুরু হয় এবং তিনি ১১ বছর বয়সে তার ভাইদের সঙ্গে মঞ্চে পারফর্ম করা শুরু করেন। তিনি শীঘ্রই তার অনন্য শৈলীর জন্য পরিচিত হয়ে ওঠেন – কেউ কেউ তার সঙ্গীতকে “আধ্যাত্মিক এবং ঐশ্বরিক” হিসেবে বর্ণনা করেন।

    বছরের পর বছর ধরে তার খ্যাতি স্থির হয়ে ওঠে এবং তিনি ভারত ও সারা বিশ্বের অনেক শাস্ত্রীয় সঙ্গীত উৎসবে একটি স্থায়ী সংযোজন হয়ে ওঠেন। এছাড়াও তিনি কিছু বলিউড প্রকল্পে পরিচালকদের সাথে সহযোগিতা করেন কিন্তু মঞ্চ সঙ্গীতে তার সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার রয়ে গেছে। এছাড়াও তিনি অনেক বিখ্যাত সঙ্গীত পরিচালক এবং গায়ক দের শিক্ষা এবং লালন পালনের জন্য স্মরণ করা হবে।

    তিনি ভারতের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা পদ্মবিভূষণ সহ অসংখ্য জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেন।

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    আগামীকাল ভারত বনধের ডাক ! একাধিক দাবি সংখ্যালঘু সম্প্রদায় কর্মচারী ফেডারেশনের

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : আবারও ২৫ মে ভারত বনধের ডাক। ভোটে ইভিএম-র ব্যবহার বন্ধ সহ একাধিক বিষয়ে ভারত...

    ডিজিট্যাল লেনদেনে প্রথম সারিতে ভারত , বর্ষপূর্তিতে বড় সাফল্য মোদী সরকারের

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : ২০১৪ সালে দেশের ক্ষমতায় বসেছিল মোদী সরকার। আগামী ২৬ মে ৮ বছর পূর্ণ করতে...

    জুন মাসে ১২ দিন ছুটি ব্যাংকে ! দেখুন সম্পর্ণ তালিকা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : যদি জুন মাসে ব্যাঙ্ক সংক্রান্ত কোনও কাজের পরিকল্পনা থাকে, তবে আপনার জন্য দরকারি খবর।...

    ভারতে উৎপাদন বাড়াবে Apple ! কমবে চীন নির্ভরতা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : চিন থেকে উৎপাদন নির্ভরতা কমাতে উদ্যোগ নিল Apple। আর ভারতে উৎপাদনে জোর দেওয়ার কথা...

    “ফুল” বদল করলেন ব্যারাকপুরের বাহুবলী নেতা অর্জুন সিং

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে তৃণমূলে যোগদান করলেন বারাকপুরের বিজেপি সাংসদ...