28 C
Kolkata
Thursday, August 11, 2022
More

    আরবিআই মুদ্রানীতি আগস্ট ২০২০ লাইভ আপডেট

    দ্যা ক্যালকাটামিরর ব্যুরো:,রেপো রেট ৪ শতাংশে অপরিবর্তিত রাখল আরবিআই। বৃহস্পতিবার আরবিআই গভর্নর শক্তিকান্ত দাস মিডিয়ার উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন, তিনি বলেন কেন্দ্রীয় ব্যাংক রেপো রেট চার শতাংশ ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ।” তিনি এর সাথে যোগ করেন: “বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দা রয়ে গেছে; সেই সাথে কোভিড মামলার উত্থান অর্থনীতি’র পুনরুজ্জীবনের প্রাথমিক লক্ষণ কমিয়ে দিয়েছে।

    “আরবিআই সম্ভবত বিশ্বের একমাত্র কেন্দ্রীয় ব্যাংক যারা জটিল অপারেশন অব্যাহত রাখার জন্য একটি বিশেষ কোয়ারান্টাইন সুবিধা স্থাপন করেছে মুদ্রাস্ফীতি যাতে লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে থাকে তা নিশ্চিত করতে যতদিন প্রয়োজন হবে ততদিন মুদ্রা নীতির একটি সমন্বিত অবস্থান অব্যাহত থাকবে।”

    তিনি সাংবাদিকদের আরও জানান, ফেব্রুয়ারি মাস থেকে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ইতোমধ্যে রেপো রেট মোট ১১৫ বেসিস পয়েন্ট কমিয়ে দিয়েছে। রয়টার্সের এক জরিপ অনুসারে অর্থনীতিবিদরা মনে করছেন আরবিআই রেপো রেট আরও ২৫ বেসিস পয়েন্ট কমিয়ে আনতে পারে। যদিও এসবিআই-এর একটি গবেষণা প্রতিবেদনে ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়েছে যে আরবিআই সম্ভবত রেপো রেট অপরিবর্তিত রাখবে।

    এদিকে, আরবিআই-এর এই ঘোষণার আশায় বাজার আজ উর্দ্ধমুখী। বিএসই বর্তমানে ২৫০ পয়েন্ট বেড়েছে এবং এনএসই ৬৬ পয়েন্ট বেড়েছে।

    বৃহস্পতিবার ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের মুদ্রানীতির ফলাফলের আগে বৃহস্পতিবার উদ্বোধনী অধিবেশনে ডোমেস্টিক ইকুইটি বেঞ্চমার্ক সেনসেক্স ১৫০ পয়েন্ট বেড়ে যায়।

    বিএসই সেনসেক্স ১৮৩ পয়েন্ট বা ০.৪৯ শতাংশ বেশি লেনদেন করেছে ৩৭,৮৪৬.৩৩ পয়েন্টে; এদিকে এনএসই নিফটি ৫২.৭০ পয়েন্ট বা ০.৪৭ শতাংশ বেড়ে ১১,১৫৪.৩৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

    ওএনজিসি সেনসেক্স প্যাকে শীর্ষ লাভকারী ছিল, যা ৩ শতাংশের বেশি বেড়েছে, এর পরে রয়েছে টেক মাহিন্দ্রা, টিসিএস, এইচসিএল টেক, এনটিপিসি, ইনফোসিস এবং এইচডিএফসি জুটি।

    অন্যদিকে, পিছিয়ে রয়েছে মারুতি, অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক, ভারতী এয়ারটেল, এম অ্যান্ড এম এবং রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ। গত অধিবেশনে ৩০ শেয়ার সেনসেক্স ২৪.৫৮ পয়েন্ট বা ০.০৭ শতাংশ কমে ৩৭,৬৬৩.৩৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

    প্রেস রিলিজটি পড়তে এখানে ক্লিক করুন: Statement on Developmental and Regulatory Policies

    এক্সচেঞ্জ ডেটা য় দেখা গেছে যে বিদেশী প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা বুধবার মোট ভিত্তিতে ৬০.১৮ কোটি টাকার ইকুইটি বিক্রি করেছে।

    শেষ কবে আরবিআই রেট কমানো হয়েছে এই প্রশ্নের উত্তরে গভর্নর জানান- গত ২২ মে আরবিআই তাদের পলিসি রেট সংশোধন করেছিল, একটি অফ-পলিসি সাইকেল, যা ঐতিহাসিক ভাবে সুদের হার কমিয়ে চাহিদা বাড়াতে পারে।

    আরবিআই গভর্নর শক্তিকান্ত দাস ঘোষণা করেন-“২০২০ সালের ১ মার্চ পর্যন্ত মানসিক চাপযুক্ত এমএসএমই ঋণ পুনর্গঠনের যোগ্য হবে। কেন্দ্রীয় ব্যাংক আঞ্চলিক বৈষম্য দূর করতে অগ্রাধিকার খাতের ঋণ নির্দেশিকা সংশোধন করবে। স্টার্টআপদের ঋণ অগ্রাধিকার ‘সেক্টর লেন্ডিং ট্যাগ’ পাবে,” ।

    ব্যাংকিং ব্যবস্থার সুষ্ঠুতা নিশ্চিত করতে আরবিআই-এর ৭ জুন, ২০১৯ কাঠামোর অধীনে একটি উইনডো প্রদানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যাতে নির্দিষ্ট শর্তের অধীনে আদর্শ সম্পদ হিসেবে শ্রেণীবদ্ধ ঋণদাতারা মালিকানা পরিবর্তন না করে এবং ব্যক্তিগত ঋণের ক্ষেত্রে রেজোলিউশন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারে।” তিনি এর সাথে যোগ করেন: “এই রেজোলিউশন উইন্ডো ব্যাংকিং ব্যবস্থাকে সুস্থতা সংরক্ষণের দিকে নিয়ে যাবে। রেজোলিউশন পরিকল্পনায় মাপকাঠি তৈরি করার জন্য আরবিআইকে সুপারিশ করার জন্য কেভি কামাথের অধীনে একটি কমিটি গঠন করা হবে।

    শক্তিকান্ত দাস মিডিয়ার উদ্দেশ্যে তার ভাষণ অব্যাহত রেখে বলেন: “প্রচুর লিকুইডিটির কারণে আর্থিক বাজারে ঋণ নেওয়ার খরচ এক দশকের মধ্যে সর্বনিম্ন কমে গেছে। এনবিএফসি’র বাণিজ্যিক কাগজপত্র দুর্বল হয়েছে। এনবিএফসি যুক্তি সঙ্গত খরচে তহবিল পেতে পারে। তিনি এর সাথে যোগ করেন: “আর্থিক সঞ্চালন উল্লেখযোগ্যভাবে উন্নত হয়েছে। ফেব্রুয়ারি ২০১৯-জুন ২০২০ সালে ব্যাংকগুলোর জন্য গড় ঋণের হার ১৬২ বেসিস পয়েন্ট কমে যায়। এর মধ্যে মার্চ থেকে ২০২০ সালের জুন মাসের মধ্যে ৯১ বেসিস পয়েন্ট ট্রান্সমিশন প্রত্যক্ষ করা হয়েছে।

    তিনি আরও বলেন, “নাবার্ড (৫,০০০ কোটি টাকা) এবং ন্যাশনাল হাউজিং ব্যাংককে (৫,০০০ কোটি টাকা) অতিরিক্ত ১০,০০০ কোটি টাকার অতিরিক্ত বিশেষ লিকুইডিটি সুবিধা প্রদান করা হবে।

    নাবার্ড, ন্যাশনাল হাউজিং ব্যাংকের জন্য অতিরিক্ত বিশেষ লিকুইডিটি সুবিধা কার্যকর করার জন্যে যা যা পন্থা অবলম্বন করছে আরবিআই:
    Covid-19 মহামারী দ্বারা সৃষ্ট আর্থিক চাপ আরো কমাতে আর্থিক বাজারের জন্য লিকুইডিটি সহায়তা বৃদ্ধি;
    ঋণের প্রবাহ উন্নত করা;
    ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেমকে আরও গভীর করা;
    উদ্ভাবনকে সহজ তরঙ্গে পরিণত করা।

    যদিও প্রকৃত জিডিপি প্রবৃদ্ধি প্রথমার্ধে এবং পূর্ণ অর্থবছরে নেতিবাচক অঞ্চলে থাকবে। মুদ্রা নীতি কমিটি আশা করছে যে মুদ্রাস্ফীতি দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে উন্নীত হবে এবং এইভাবে, অর্থবছরের দ্বিতীয়ার্ধে একটি স্বস্তি প্রদান করবে।

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    বাংলার অনুশীলনে রামন!‌ বাংলার ভিশন ২০২০ প্রকল্পের স্পিন পরামর্শদাতা বেঙ্কটপতি রাজু?‌

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : ইডেনের ইন্ডোরে বাংলার অনুশীলনে ব্যাটিং পরামর্শদাতা ডব্লিউ ভি রামন। খোলা মাঠে অনুশীলন করাতে চাইলেও, কলকাতায় বর্ষার মরসুমে...

    কমনওয়েলথে সোনাজয়ী অচিন্ত্যকে রাজ্য সরকারের ৫ লক্ষ!‌ ‘খেলা দিবসে’ আর্থিক পুরস্কার সৌরভকেও

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : কমনওয়োলথ গেমসো ভারোত্তোলনে সোনা জয়ী অচিন্ত্য ও স্কোয়াশে ব্রোঞ্জ জয়ী সৌরভ ঘোষাল। দুই...

    সরাসরি ধর্মতলা থেকে হাবড়া এক বাসেই , দেখুন সম্পূর্ণ তথ্য

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : এবার সরাসরি ধর্মতলা থেকে হাবড়া এক বাসে যাওয়া যাবে।ওই বাসে পৌঁছে যাওয়া যাবে বকখালিও।...

    সঞ্জীবনী সঞ্চার বঙ্গ বিজেপিতে , এলেন নতুন পর্যবেক্ষক

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : বিজয়বর্গীয় যুগের অবসান। নয়া পর্যবেক্ষক পেল বঙ্গ বিজেপি। কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সুনীল বনশলকে...

    নির্ধারিত সূচির আগে শুরু হবে ফুটবল বিশ্বকাপ , জানাল FIFA

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : নির্ধারিত সূচির একদিন আগে শুরু হবে ফুটবল বিশ্বকাপ। কাতারে প্রচণ্ড গরমের কারণে শীতকালে ফুটবল...