33 C
Kolkata
Wednesday, August 17, 2022
More

    ‘ভারতের GDP বাংলাদেশের GDP’র তুলনায় নিম্ন’ এই আভাস ও একই সাথে ‘কটাক্ষ’ কী আসলেই যুক্তিযুক্ত

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো: গত বুধবার বিশ্ব অর্থনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সর্বশেষ আপডেট প্রকাশিত হয়েছে। আইএমএফ-এর হিসেব অনুযায়ী, ২০২০ সালে ভারতের মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ১০% এর বেশি সংকোচনের সাক্ষী হবে। এটা সংকোচনের মাত্রার দ্বিগুণেরও বেশি- যা আইএমএফ মাত্র কয়েক মাস আগে ভারতের জন্য অনুমান করেছিল।

    কিন্তু তীক্ষ্ণ সংকোচনের চেয়েও, যা সবার মনোযোগ আকর্ষণ করেছে তা হচ্ছে ২০২০ সালে একজন গড় বাংলাদেশী নাগরিকের মাথাপিছু আয় একজন গড় ভারতীয় নাগরিকের মাথাপিছু আয়ের চেয়ে বেশি হবে।

    এটা কিভাবে ঘটলো? ভারত কি বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতি নয়?
    সাধারণত, দেশগুলোকে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার বা পরম জিডিপির ভিত্তিতে তুলনা করা হয়। স্বাধীনতার পর থেকে ভারতের অর্থনীতি বাংলাদেশের চেয়ে ভালো হয়েছে। বিভিন্ন সমীক্ষা থেকে দেখা যায় যে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার এবং পরম জিডিপি- ভারতের অর্থনীতি মূলত বাংলাদেশের আয়তনের ১০ গুণ বেশি, এবং প্রতি বছর যা দ্রুত বৃদ্ধি পায়।

    যাইহোক, মাথাপিছু আয় ছাড়াও আরেকটি চালক জড়িত সেটি হল সামগ্রিক জনসংখ্যা এবং মোট জনসংখ্যা দ্বারা মোট জিডিপিকে ভাগ করে দেখা। এর ফলে ভারতের মাথাপিছু আয় এ বছর বাংলাদেশের নিচে নেমে যাওয়ার তিনটি কারণ রয়েছে।

    *প্রথম যে বিষয়টি লক্ষ্য করা যায় তা হচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনীতি ২০০৪ সাল থেকে দ্রুত জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার বৃদ্ধি করে আসছে। যাইহোক, এই গতি ২০০৪ থেকে ২০১৬ মধ্যে দুই অর্থনীতির আপেক্ষিক অবস্থান পরিবর্তন করেনি কারণ ভারত বাংলাদেশের চেয়েও দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু ২০১৭ সাল থেকে ভারতের প্রবৃদ্ধির হার দ্রুত হ্রাস পেয়েছে এবং বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি দ্রুত গতিতে বেড়েছে।

    *দ্বিতীয়ত, এই ১৫ বছর ধরে, ভারতের জনসংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে (প্রায় ২১%) বাংলাদেশের জনসংখ্যার চেয়ে (মাত্র ১৮ শতাংশের নিচে)।

    এই দুটি বিষয়ের সম্মিলিত প্রভাব দেখা যায় কিভাবে মাথাপিছু জিডিপির ব্যবধান উল্লেখযোগ্যভাবে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল এমনকি কোভিড-১৯ আঘাত হানার আগেও। কিন্তু বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার ঠিক আগে। বাংলাদেশের মাথাপিছু জিডিপি ছিল ২০০৭ সালের ভারতের অর্ধেক- এটা ২০১৪ সালে ভারতের প্রায় ৭০% ছিল এবং এই ব্যবধান গত কয়েক বছরে দ্রুত বন্ধ হয়ে যায়।

    *সবশেষে, সবচেয়ে তাৎক্ষণিক ফ্যাক্টর ছিল ২০২০ সালে দুই অর্থনীতির উপর কোভিড-১৯ এর আপেক্ষিক প্রভাব। ভারতের জিডিপি ১০% কমে গেলেও বাংলাদেশের জিডিপি প্রায় ৪% বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করা হচ্ছে। অন্য কথায়, ভারত সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতির মধ্যে অন্যতম হলেও বাংলাদেশ সেখানে অন্যতম উজ্জ্বল স্থান।

    এটা কি আগে কখনো ঘটেছে?
    হ্যাঁ. ১৯৯১ সালে যখন ভারত ভয়াবহ সংকটের সম্মুখীন হয় এবং মাত্র ১% বৃদ্ধি পায়, তখন বাংলাদেশের মাথাপিছু জিডিপি ভারতের চেয়ে এগিয়ে ছিল। তারপর থেকে, ভারত আবার নেতৃত্ব গ্রহণ করে।

    ভারত কি আবার নেতৃত্ব ফিরে পেতে পারে?
    হ্যাঁ. আইএমএফ-এর অনুমান দেখাচ্ছে যে আগামী বছর ভারত দ্রুত গতিতে এগিয়ে যেতে পারে এবং সব সম্ভাবনা ই সামনে রয়ে যাবে। কিন্তু বাংলাদেশের নিম্ন জনসংখ্যা বৃদ্ধি এবং দ্রুত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির কথা মাথায় রেখে ভারত ও বাংলাদেশ মাথাপিছু আয়ের দিক থেকে অদূর ভবিষ্যতেও পরিসংখ্যান কাছাকাছি হতে পারে।

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    নেতাজির চিতাভস্ম দেশে ফেরানো হোক , দাবি নেতাজী কন্যার

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : তার অন্তর্ধান রহস্য কি সমাধান হবে ? সেই বিষয়েই এবার বড় পদক্ষেপের কথা বললেন,...

    ভারতীয় ফুটবলের কালো দিন ! AIFF-কে নির্বাসিত করল FIFA

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : ভারতীয় ফুটবলে কালো দিন। অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনকে নির্বাসিত করল ফিফা। ফিফার তরফে প্রেস...

    আজ ভারত ছাড়া আর কোন কোন দেশের স্বাধীনতা দিবস ?

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : আজ ১৫ অগাস্ট আমাদের দেশের ৭৬তম স্বাধীনতা দিবস। অনেক আন্দোলন আর প্রাণ বিসর্জনের বিনিময়ে...

    দেশবাসীর গর্বের মুহূর্ত , মহাকাশে উড়ল জাতীয় পতাকা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : কোথাও জলের রঙ হল গেরুয়া-সাদা-সবুজ। ফুটে উঠেছে অশোক চক্র। কোথাও আবার জলপ্রপাতে ফুটে উঠেছে...

    মেয়েরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ , জাতির উদ্দেশ্যে ভাষনে বললেন রাষ্ট্রপতি

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : স্বাধীনতার আগের মুহূর্তের সন্ধেয় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলের দেশের নব নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু।...