28 C
Kolkata
Saturday, June 25, 2022
More

    তৃতীয় পর্যায়ের ভ্যাকসিন ট্রায়াল শুরু করছে কোভ্যাক্সিন (Covaxin) উত্‍পাদক সংস্থা ভারত বায়োটেক

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো: ভারতের প্রথম করোনাভাইরাসের ‘ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেন্ট’ কোভ্যাক্সিন (Covaxin) তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরুর জন্য বৃহস্পতিবার রাতের দিকে ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়ার (DCGI) অনুমোদন পেয়েছে। এই ভ্যাকসিন কমপক্ষে ৬০ শতাংশ কার্যকরী হবে এমনটাই জানাল প্রস্ততকারক সংস্থা ভারত বায়োটেক।

    এই তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে সম্ভাব্য টিকার কার্যকারিতা খতিয়ে দেখা হবে। আর সব ঠিক থাকলে আগামী বছর এপ্রিল বা মে মাসেতে এই তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হরে পারে। এই বিষয়টি নিয়ে ভারত বায়োটেকের এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর সাই প্রসাদ জানিয়েছেন যে ‘‘(প্রাথমিকভাবে) আমাদের কোভিড টিকার কার্যকারিতার মানদণ্ড ৬০ শতাংশ ধরা হয়েছে। ‘কোভ্যাক্সিনে’র সবথেকে বড় তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চালাব আমরা। আগামী বছর এপ্রিল বা মে’র গোড়ার দিকে সেই কার্যকারিতা সংক্রান্ত ফলাফল মিলবে।’’

    উল্লেখ্য, শ্বাসতন্ত্র টিকার মান, সুরক্ষা এবং কার্যকারিতা সংক্রান্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (WHO) নির্দেশিকা অনুযায়ী, অনুমোদনের জন্য কোনও টিকাকে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ কার্যকারী হতে হবে। ভারত বায়োটেকের প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট দলের সদস্য প্রসাদ বলেন, ‘‘৫০ শতাংশ কার্যকরী হলেই শ্বাসতন্ত্র সংক্রান্ত টিকার অনুমোদন দেয় হু, মার্কিন এফডিএ (FDI) এবং ভারতের সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গাইজেশন। কোভ্যাক্সিনের ক্ষেত্রে আমরা কমপক্ষে ৬০ শতাংশ কার্যকারিতার লক্ষ্যমাত্রা পার করার চেষ্টা করছি। তবে তারও বেশি হতে পারে। আমাদের ট্রায়ালের ফল অনুযায়ী, টিকার কার্যকারিতা ৫০ শতাংশের কম হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই কম। যে ফলাফলে প্রাণীদের উপর পরীক্ষার বিষয়টিও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।’’

    ইতিমধ্যেই ভারত বায়োটেক প্রথম পর্যায়ের ট্রায়ালের রিপোর্ট কেন্দ্রীয় ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে জমা দিয়েছে। তাতে সুরক্ষাজনিত গুরুতর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়নি। দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের সুরক্ষাজনিত পরীক্ষা সম্পূর্ণ হয়ে হিয়েছে। আপাতত অনাক্রম্যতা বিষয়ক পরীক্ষা চলছে। এই ক্ষেত্রে টিকা প্রয়োগের পর শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার প্রতিক্রিয়া খতিয়ে দেখা হয়। একইসঙ্গে চলছে তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের প্রস্তুতি।

    ভারত বায়োটেক সূত্রে জানা গিয়েছে যে এই টিকার কার্যকারিতা নির্ধারণ করতে আগামী নভেম্বরের মাঝামাঝি সময় থেকে তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু হবে। দেশের ১৩-১৪ টি রাজ্যের ২৫-৩০ টি জায়গায় ২৬,০০০ ‘‘স্বেচ্ছাসেবক’ নিয়ে সেই ট্রায়াল চলবে। প্রথম পর্যায়ের ট্রায়ালের ক্ষেত্রে সেই সংখ্যাটা ছিল ২,০০০-এর মতো। দ্বিতীয় পর্যায়ে তা ছিল ৪০০। প্রসাদ বলেন, ‘তৃতীয় পর্যায়ের জন্য আমরা ইতিমধ্যে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছি। নভেম্বরে (স্বেচ্ছাসেবকদের) নেওয়া হবে এবং ডোজ শুরু করে। তাতে টিকা ও প্লাসেবো গ্রহীতাদের দুটি ডোজ দেওয়া হবে। সংক্রমণের হার, স্থানীয়ভাবে কীভাবে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে এবং অন্যান্য বিষয়ের উপর ভিত্তি করে নিয়োগ ও জায়গা বেছে নেওয়ার বিষয়টি নির্ভর করবে। হাসপাতাল পিছু ২,০০০-এর মতো স্বেচ্ছাসেবক নথিভুক্ত হতে পারে।’’

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    পুজোর বাকি ১০০ দিন ! অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় বাঙালি

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : পুজোর বাকি ১০০ দিন। এখন থেকেই পুজোর প্ল্যানিং ? এখনও ঢের বাকি ! না,...

    দুর্বল মৌসুমী বায়ু ! অনিশ্চিত বর্ষা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : মৌসুমি বায়ু ঢুকলেও দক্ষিণবঙ্গে দুর্বল হয়ে পড়ল। আগামী কয়েকদিন বিশেষ বৃষ্টির সম্ভাবনা দেখছেন না...

    আরেকটা করোনা বিস্ফোরণের মুখে দাঁড়িয়ে রাজ্য ?

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : রাজ্যে ভয়াবহ আকার নিল করোনা। এক লাফে ৭০০ পার করল দৈনিক সংক্রমণ। বৃহস্পতিবার দৈনিক...

    এক অভিনব সাইকেল যাত্রা শুরু করলো সিভিক ভলেন্টিয়ার বিপ্লব দাস ।

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো :এক অভিনব সাইকেল যাত্রা শুরু করলো বিরাটির সিভিক ভলেন্টিয়ার বিপ্লব...

    রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে কারা এগিয়ে ? বিজেপি নাকি বিরোধী জোট ?

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : ঘটেছে সমস্ত জল্পনার অবসান। BJP-র পাশাপাশি বিরোধীরাও ১৬তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে তাদের প্রার্থীর নাম ঘোষণা...