16 C
Kolkata
Monday, January 17, 2022
More

    প্রধানমন্ত্রী মোদী’র অনুদানের উত্‍স সঞ্চয় ও নিলাম থেকে প্রাপ্ত ১০৩ কোটি টাকা : কর্মকর্তারা জানিয়েছেন

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো:প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন পিএম কেয়ারস ফান্ড তৈরি হওয়ার পর প্রাথমিক অনুদান হিসেবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তার নিজের পকেট থেকে ২.২৫ লাখ টাকা দান করেছেন। সংক্ষিপ্ত জরুরী পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর নাগরিক সহায়তা এবং ত্রাণ তহবিলের জন্য, পিএম কেয়ারের অধীনে সংগৃহীত অর্থ করোনাভাইরাস মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মোতায়েন করা হয়েছে।

    নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পিএমও (প্রধানমন্ত্রী অফিস) কর্মকর্তা বলেন, “প্রধানমন্ত্রী মোদী পিএম কেয়ারস ফান্ডের প্রাথমিক পর্যায়ে ২.২৫ লাখ টাকা দান করেছেন। এই কর্মকর্তা আরও বলেন যে- “প্রধানমন্ত্রী মোদীর এই ধরণের কল্যাণমূলক কর্মধারার একটি দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। যার মধ্যে কন্যা শিশু শিক্ষা থেকে শুরু করে গঙ্গা পরিষ্কার ও সুবিধাবঞ্চিতদের কল্যাণে কাজ করার একটি ধারাবাহিক ইতিহাস রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর এই সব কর্মকান্ডে প্রদত্ত অনুদান এখন ১০৩ কোটি ছাড়িয়ে গিয়েছে।”

    একই ধরনের প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় ত্রাণ তহবিলের (পিএমএনআরএফ) দিকে ইঙ্গিত করে কংগ্রেস এবং অন্যান্য দল, পিএম কেয়ার ফান্ডের আইনি বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে এবং এর প্রয়োজনীয়তা নিয়েও প্রশ্ন করেছে।

    রাজ্য দুর্যোগ ত্রাণ তহবিলের কর্পোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা সুবিধা অবদান থেকে বঞ্চিত থাকা নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে। পিএম কেয়ারস ফান্ড ভারতের কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল (CAG) দ্বারা অডিট করা যাবে না।

    কেন্দ্র এই পিএম কেয়ারস ফান্ডকে সমর্থন করে বলেছে যে এটি একটি স্বেচ্ছাসেবী তহবিল যখন অন্যান্য বিপর্যয় মোকাবিলা তহবিলের বাজেট বরাদ্দ কোনো সমস্যার মধ্যে পড়ে তখন এটিকে কাজে লাগানো যাবে।

    প্রধানমন্ত্রী মোদী গত বছর উত্তর প্রদেশের প্রয়াগরাজে অনুষ্ঠিত কুম্ভমেলায় সাফাই কর্মীদের কল্যাণের জন্য তার ব্যক্তিগত সঞ্চয় থেকে ২১ লাখ টাকা দান করেছেন।

    দক্ষিণ কোরিয়ায় সিউল শান্তি পুরস্কার পাওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী মোদী গঙ্গা পরিষ্কারের কাজের জন্য তাঁর পুরস্কার থেকে প্রাপ্ত সমস্ত অর্থাত্‍ ১.৩ কোটি টাকা দান করেন। পিএমও কর্মকর্তারা জানান, তিনি নদী পরিষ্কার মিশনে তার নিলামে আনা স্মারক থেকে প্রাপ্ত আরও ৩.৪০ কোটি টাকা দান করেছেন। কর্মকর্তারা জানান, ২০১৫ সালে প্রধানমন্ত্রী মোদী যে উপহার পেয়েছিলেন তার নিলাম থেকে ৮.৩৫ কোটি টাকা তোলা হয়েছে।

    গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তার মেয়াদ শেষ করার পর, তিনি গুজরাটের সরকারী কর্মচারীদের মেয়েদের শিক্ষিত করার জন্য তার নিজের সঞ্চয় থেকে ২১ লাখ টাকা দান করেছিলেন। তিনি গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন যে সব উপহার পেয়েছিলেন তা নিলামে তুলে ৮৯.৯৬ কোটি টাকা সংগ্রহ করেন এবং তা ‘কন্যা কেলাভানি’ তহবিলে দান করেন যা শিক্ষার জন্য মেয়ে শিশুদের সবরকম সহায়তা করে।

    প্রধানমন্ত্রী কেয়ারস ফান্ডকে ফরেন অ্যাট্রিবিউশন (রেগুলেশন) আইনের অধীনে অব্যাহতি দেওয়া হয় এবং বিদেশী অনুদান পাওয়ার জন্য একটি পৃথক একাউন্ট খোলা হয়েছে। এর ফলে প্রধানমন্ত্রী কেয়ারস ফান্ড, বিদেশের ব্যক্তি এবং সংস্থার কাছ থেকে অনুদান এবং অবদান গ্রহণ করতে সক্ষম।

    সরকার পিএম কেয়ারস ফান্ড ওয়েবসাইটে বলেছে “এটি প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় ত্রাণ তহবিলের (পিএমএনআরএফ) সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। পিএমএনআরএফ ২০১১ সাল থেকে জনগণের আস্থা হিসেবে বিদেশী অনুদান পেয়েছে।”

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    অনেকদিন পর রাজ্যে কমল করোনা সংক্রমন , উদ্বেগের কারণ কলকাতা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : গত কয়েকদিন পর সামান্য কমল করোনা সংক্রমণ। কমল মৃত্যুর সংখ্যাও। গত তিনদিন ধরে বাংলায়...

    প্রয়াত নাট্যজগতের অন্যতম বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব শাঁওলি মিত্র !

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : প্রয়াত বাংলার অন্যতম বিখ্যাত নাট্যকার শাঁওলি মিত্র। আজ দুপুর তিনটের সময় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ...

    দীর্ঘদিন স্কুল কলেজ বন্ধ রাখার প্রয়োজন নেই , বললেন বিশ্ব ব্যাংকের কর্তা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : করোনা থেকে শিশুদের রক্ষা করতে দীর্ঘ এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ স্কুল, কলেজ...

    ওমিক্রনের উপসর্গের সাথে অন্য ভ্যারিয়েন্টের পার্থক্য কি ? দেখুন কি বলছে বিশেষজ্ঞরা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : ওমিক্রনের ফলে দ্রুত সংক্রমণ ছড়াচ্ছে বলে মত বিশেষজ্ঞদের। ওমিক্রনে সংক্রমণ দ্রুত ছড়াচ্ছে বটে। কিন্তু...

    আর ৭ দিন নয় , এবার ৫ দিন হতে পারে হোম আইসোলেশনের মেয়াদ !

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : আর ৭ দিন নয়, এবার থেকে করোনায় আক্রান্ত হলে ৫ দিন হোম আইসোলেশনে থাকলে...