25 C
Kolkata
Wednesday, February 8, 2023
More

    প্রাক্তন মন্ত্রী, ছ’বারের বিধায়ক কাশীকান্ত মৈত্রের জীবনাবসান

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো: শনিবার পন্ডিত লক্ষীকান্ত মৈত্রের সুযোগ্য পুত্র, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের প্রাক্তন মন্ত্রী এবং বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ কাশীকান্ত মৈত্রের জীবনাবসান হলো। 29 শে আগস্ট বিকেল চারটে দশ মিনিটে কলকাতার (সল্টলেকের সেক্টর-৩ এর) বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর।

    পন্ডিত লক্ষ্মীকান্ত মৈত্র ও হিরণ্যবালার একমাত্র সন্তান কাশীকান্ত মৈত্র ১৯২৫ সালের ১৮ই ফেব্রুয়ারী অধুনা বাংলাদেশের ঢাকাতে জন্ম গ্রহন করেন। পরবর্তীতে শান্তিপুর মিউনিসিপ্যাল উচ্চ বিদ্যালয়, কৃষ্ণনগর গভর্মেন্ট কলেজ ও কলকাতায় পড়াশোনা করেন। পেশাদারী জীবনে কোলকাতা হাইকোর্টের অন্যতম শ্রেষ্ঠ আইনজীবী রূপে পরিচিত ছিলেন। হাইকোর্টের বিচারপতি হিসাবে একাধিকবার তাঁর নাম মনোনীত হয়েছে। কিন্তু তিনি অত্যন্ত বিনয়ের সাথে তা প্রত্যাখ্যান করেছিলেন। ১৯৬২ সাল থেকে ১৯৮২ সাল পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার নির্বাচিত সদস্য ছিলেন এবং তিনি প্রত্যেকবারই কষ্ণনগর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করেছেন।

    প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী স্বর্গীয় বিধান চন্দ্র রায়ের মৃত্যুর পর প্রফুল্ল চন্দ্র সেন মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহন করেন এবং সে সময় নদীয়া জেলা সহ বেশ কয়েকটি জেলায় ভয়ানক খাদ্য সংকট দেখা দেয়। যা প্রায় দুর্ভিক্ষের চেহারা নেয়। একমুঠো চালের জন্য সেসময় মানুষ হাহাকার শুরু করে। রাজ্যের অন্যান্য অংশের মত নদীয়াতেও শুরু হয় খাদ্য আন্দোলন। সেই খাদ্য আন্দোলনেরও নেতৃত্ব দেন তিনি।

    বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, আইনজীবী পশ্চিমবঙ্গ বাংলার যুক্তফ্রন্ট সরকারের আমলে মুখ্যমন্ত্রী অজয় ভট্টাচার্য এবং পরবর্তী সময়ে কংগ্রেসী জামানায় কংগ্রেস বিধায়ক হিসেবে মুখ্যমন্ত্রী সিদ্ধার্থ শংকর রায়ের মন্ত্রী সভার সদস্য হন। খাদ্য, মৎস্য এবং সুন্দরবন দপ্তরের ক্যাবিনেট মন্ত্রীও হন তিনি। মন্ত্রী থাকাকালীন সময়ে হরিণঘাটা এবং খাদ্য দপ্তরে শান্তিপুরের বহু যুবককে চাকরিও দেন বলে জানা যায়।

    শেষের দিনে…..

    শান্তিপুরের বঙ্গীয় পূরান পরিষদ, পাবলিক লাইব্রেরীর সাথে যুক্ত ছিলেন তিনি। কর্মসূত্রে কলকাতায় থাকলেও দুর্গাপুজো, কালীপুজো, অন্নপূর্ণা পূজার সময় শান্তিপুরের মৈত্র পাড়ার বাড়িতে পারিবারিক পুজোয় অংশগ্রহণ করতেন। দেবী দূর্গার শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করতেন। শান্তিপুরে থাকার সময় বহু মানুষ তার সাথে দেখা করতে আসতেন তিনিও সকলের সাথে কথা বলতেন।

    কাশীকান্ত মৈত্রের দুই সন্তানের এক সন্তান প্রয়াত সুব্রত মৈত্রও ছিলেন কোলকাতার স্বনামধন্য চিকিৎসক এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যক্তিগত চিকিৎসক। বর্তমানে তাঁর মেয়ে এবং অন্যান্য পরিজনদের রেখে তিনি অমৃত লোকের পথে যাত্রা করেছেন ।

    নির্ভিক, বাগ্মী ক্ষুরধার যুক্তি সম্পন্ন সুবক্তা কাশীকান্ত মৈত্রের ২৯’ শে আগষ্ট জীবনাবসান হওয়ার পর ঐ দিন রাতেই কলকাতার নিমতলা মহাশ্মশানে তাঁর শেষ কৃত্য সম্পন্ন হয়। কাশীকান্ত মৈত্রের জীবনাবসানে রাজ্যের রাজনৈতিক মহল এবং শান্তিপুর সহ তাঁর অন্যান্য বিচরণের জায়গায় শোকের ছায়া নেমেছে।

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    নিখরচায় চক্ষু পরীক্ষা শিবির

    কলকাতা ক্রীড়া সাংবাদিক ক্লাবের অর্থাৎ সিএসজেসি-‌র প্রচেষ্টায় এবং নাগরিক স্বাস্থ্য সঙ্ঘের সহযোগীতায় মঙ্গলবার সিএসজেসিতে কম্পিউটারাইজড চক্ষু পরীক্ষা শিবির অনুষ্ঠিত হল। ক্রীড়া সাংবাদিকদের...

    সবুজ মেরুনের ঘাড়ের‌ ওপর নি:‌শ্বাস বেঙ্গালুরুর :‌ রাজকুমার মণ্ডল

    জামশেদপুর ম্যাচে জয়ে ফিরতে মরিয়া এটিকে মোহনবাগান। বেঙ্গালুরুর কাছে হের একধাপ নীচে এটিকে মোহনবাগান। ১৬ ম্যাচে ২৭ পয়েন্টে পাঁচ নম্বরে সবুজ মেরুন।...

    নাগপুর টেস্টে তিন স্পিনারে নামছে ভারত :‌ রাজকুমার মণ্ডল

    ভারত-অস্ট্রেলিয়া প্রথম টেস্ট। যুদ্ধকালীন প্রস্তুতিতে দুই দলই। বর্ডার-গাভাসকর ট্রফি শুরুর আগে ভারতের সহ অধিনায়ক কেএল রাহুলের মুখে তিন স্পিনার নিয়ে খেলার পরিকল্পনার...

    বাড়ির দেওয়ালে ছবি সাজানোর আগে বাস্তুর নিয়ম না জানলে বাড়তে পারে সমস্যা!

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো :- লোকেরা তাদের ঘর সাজানোর জন্য পারিবারিক ছবি রাখে। আসলে, বাড়ির দেয়ালে সজ্জিত ফটোগুলি পারস্পরিক ভালবাসাকে প্রতিফলিত করে।...

    শান্তিতে ঘুমাতে চাইলে এই জিনিসগুলো বিছানার অন্য পাশে রাখবেন না!

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো :- আমাদের জীবনে বাস্তুশাস্ত্রের অনেক গুরুত্ব রয়েছে। বাস্তুতে এমন অনেক নিয়ম বলা হয়েছে যা আমাদের জীবনের সমস্যাগুলি কাটিয়ে...