29 C
Kolkata
Monday, October 3, 2022
More

    মুজফ্ফর আহমেদের পর ব্যাতিক্রমী ভাবে পালিত হল জ্যোতি বসুর জন্মদিন

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো :

    শুক্রবার রাজ্যের সবচেয়ে লম্বা সময়ের ( প্রায় চব্বিশ বছর ) মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর ১০৯ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত হয় নানা ধরনের অনুষ্ঠান। সব ক’টি অনুষ্ঠানেই ছিল চলমান রাজনীতি ও আগামী দিনের লক্ষ্য বুঝে বামেদের এগিয়ে চলার সংকেত। সিপিএম দলে কমিউনিস্ট পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মুজঃফর আহমেদ ছাড়া আর কোনও নেতার জন্মদিন পালনের রেওয়াজ নেই। কিন্তু বসুকে দিয়েই এক্ষেত্রেও এসেছে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। তিনি বেঁচে থাকতেই সুভাষ চক্রবর্তীর উদ্যোগে বসুর জন্মদিন পালিত হত তাঁর বাসস্থান ইন্দিরা ভবনে তাঁকে মধ্যমণি করে।

    জ্যোতি বাবু সর্বক্ষেত্রেই অন্যদের চেয়ে আলাদা। এক্ষেত্রেও তাই। দলের শীর্ষ পদাধিকারীদের উপস্থিতিতে জন্মদিন পালনের অনুষ্ঠান এই রেওয়াজে তাই সিলমোহর দিয়েছে। বসুর জন্মদিন উপলক্ষ্যে নিউ টাউনে “জ্যোতি বসু সেন্টার ফর সোশ্যাল স্টাডিজ ” এর সূচনা করেন বিমান বসু। রাজ্যের সব শীর্ষ নেতারাই ছিলেন তাঁর সঙ্গে। সন্ধ্যায় প্রমোদ দাশগুপ্ত ভবনে আয়োজিত জ্যোতি বসু স্মারক বক্তৃতার বিষয় ছিল ভারতের স্বাধীনতা : ৭৫ বছর। সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি ছিলেন মূল বক্তা। প্রারম্ভিক বক্তা : রাজ্য সম্পাদক মহ: সেলিম।

    জ্যোতি বসু নগর বলেন সিপিএম নেতারা। তৃণমূল জমানায় জ্যোতি বসুর নাম মুছে দেওয়া প্রসঙ্গ টানতেই চাননা কেউ। এই প্রসঙ্গে কোনও মন্তব্য করেও ব্যাপারটাকে গুরুত্ব দিতে চান না। কারণ, তাঁদের মনে হয়, “লোকে সব বোঝে। এনিয়ে কারও কোনও মন্তব্য করাটাও বাহুল্য। লোকে যে জানে সবই, তার আভাস পাওয়া যাচ্ছে ক্রমশ। আরও পাওয়া যাবে। বাম জমানায় বিধাননগরের নাম মুছে দিলেই কি বিধানচন্দ্র রায়ের মতো মুখ্যমন্ত্রীকে ইতিহাসের পাতা থেকে মুছে দেওয়া যেত ? এই ধরনের আচরণ মানুষ মনে রাখে। মধুমাস কেটে গেলে সুদে আসলে বকেয়া উসুল করে নেয়।” তাছাড়া, বাম নেতাদের মতে, “এটাই তো রাজনীতির ফারাক। সেটাই তো মানুষ হাড়ে হাড়ে বুঝছেন। ভারতের ইতিহাস রাজনীতি প্রমাণ করেছে, কীর্তির্যস্য জীবিত। কীর্তিই মানুষকে বাঁচিয়ে রাখে।

    যারা জ্যোতি বসুর মৃত্যু ঘন্টা বাজিয়েছিলেন, তাঁরা এখন কী বলছেন ? সবটাই মানুষ দেখছে বিচার করছে।”আজ সেন্টার ফর সোশ্যাল স্টাডিজ অ্যান্ড রিসার্চ নামে একটি সংস্থার নির্মাণ কাজের সূচনা হল প্রবীণ নেতা বিমান বসুর উপস্থিতিতে নিউ টাউনের পেঁচার মোড়ের কাছে। ছিলেন মহ: সেলিম,সূর্যকান্ত মিশ্র, সুজন চক্রবর্তী, রবীন দেব, শ্রীদীপ ভট্টাচার্য, রামচন্দ্র ডোম প্রমুখ রাজ্য সিপিএমের প্রথম সারির নেতারা। লাল পাগড়ি লাল কুর্তার সাজে শিশুব্রিগেডের বৃন্দ গীতিনাট্যে গণসংগীতের চিরাচরিত প্রথাভঙ্গ দেখা গেল।

    গীতিনাট্যে গাওয়া হল “খড়বায়ু বয় বেগে চারিদিক ছায় মেঘে…” আর ” ও আমার দেশের মাটির…” মতো গান। আরও উল্লেখ যোগ্য হল, গীতিনাট্যে “দেশের মাটি”র সুর একেবারে অন্ত লয়ে মিশে গেল “বন্দে মাতরমের” সঙ্গে।
    অন্যদিকে আজ সন্ধ্যায় জ্যোতি বসু স্মারক বক্তৃতায় স্বাধীনতার পঁচাত্তর বছর উপলক্ষে সীতারাম ইয়েচুরি ছিলেন মূল বক্তা। তাঁর বক্তব্যের মধ্যে মূল সুর ছিল স্বাধীনতা আন্দোলনে কংগ্রেস ও কমিউনিস্টদের পাশাপাশি ও একসঙ্গে চলার ইতিহাস মনে করানোর চেষ্টা।

    একশো বছর আগে চৌরিচৌরায় অসহযোগ আন্দোলন স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে সহিংস হয়ে ওঠায় গান্ধীজি যখন অসহযোগ আন্দোলন থামিয়ে দিয়েছিলেন তখন জওহরলাল নেহরু জেল থেকে চিঠি লিখে তাঁর নেতাকে বলেছিলেন, “বাপু, তুমি একী করেছ ? এই অবস্থায় আন্দোলনের গতিকে আমরা রুদ্ধ করে দিতে পারি না। এটা ঐতিহাসিক ভাবে ভুল পদক্ষেপ হবে।” তখন এটাই ছিল সদ্যোজাত কমিউনিস্ট পার্টির অবস্থান।

    তাছাড়া এআইসিসির অধিবেশনে কমিউনিস্টদের পক্ষেই পূর্ণ স্বরাজের দাবি যখন পেশ করা হয় তখন গান্ধীজি ডোমিনিয়ন স্টেটাস চেয়ে পূর্ণ স্বরাজের বিরোধিতা করলেও কংগ্রেসের ভেতরে বামপন্থীরা পূর্ণ স্বরাজের পক্ষে ছিলেন। সীতারাম ইয়েচুরি বলছিলেন, লন্ডনে ব্যারিস্টারি ছাত্র জ্যোতি বসু ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের সহায়ক শক্তির সঙ্গেই যুক্ত হয়ে তাঁর রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন।

    লেখক —- দেবারুন রায়

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    বদলে যাচ্ছে ট্রেনের টাইমটেবিল

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : ভারতে দু’কোটি ২৩ লক্ষ মানুষ প্রতি দিন ট্রেনে যাতায়াত করেন। কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য লোকাল,...

    চোখ রাঙাচ্ছে ঘূর্ণাবর্ত , বৃষ্টিতে ভিজবে বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : চোখ রাঙাচ্ছে ঘূর্ণাবর্ত। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, ওই ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে সপ্তমী থেকেই দক্ষিণবঙ্গে বাড়তে পারে...

    খাড়্গে বনাম থারুর , জমজমাট কংগ্রেস সভাপতি পদের লড়াই

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : সরকারিভাবে কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচন হয়ে গেল দ্বিমুখী। ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মন্ত্রী কে এন ত্রিপাঠির মনোনয়নপত্র...

    মুস্তাক আলি ট্রফিতে বাংলা দলে বিশ্বকাপজয়ী বোলার দলে নেই অভিজ্ঞ ব্যাটার মনোজ, অনুষ্টুপ

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : ১১ অক্টোবর থেকে শুরু সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফির দল ঘোষণা করল বাংলা। ক্রিকেটে...

    গল্‌ফ মঞ্চে বিশ্বকাপজয়ী কপিল-‌ধোনি

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : গুরগাঁওয়ে আমন্ত্রণীমূলক গল্‌ফের মঞ্চে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক কপিল দেব ও মহেন্দ্র সিংহ ধোনি।...