31 C
Kolkata
Sunday, June 26, 2022
More

    এবার NEET এও টাই ব্রেকিং, কতক্ষণ পড়তেন ইতিহাস তৈরি করা ‘শোয়েব আফতাব’

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো: ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সির (এনটিএ) কর্মকর্তাদের মতে, মেডিকেল প্রবেশিকা পরীক্ষায় নিট-এ দুজন প্রার্থী পূর্ণ নম্বর পেয়েছেন। শুক্রবার রাতে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। কর্মকর্তারা জানান, ওড়িশার শোয়েব আফতাব এবং দিল্লির আকানশা সিং ৭২০ নম্বরের মধ্যে ৭২০ স্কোর করেছেন, কিন্তু এনটিএ-এর টাই-ব্রেকিং নীতি অনুযায়ী আফতাব প্রথম এবং সিং দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন। কর্মকর্তাদের মতে, এই টাই-ব্রেকিং পলিসি বয়স, বিষয়ভিত্তিক চিহ্ন এবং ভুল উত্তরের সংখ্যার মত বিষয়গুলি বিবেচনা করেই করা হয়েছে।

    আফতাব ওড়িশার রৌরকেলা জেলার বাসিন্দা এবং তার বাবার একটি নির্মাণ কোম্পানি আছে। একটি ব্যবসায়িক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন, তিনি বলেন যে ডাক্তার হওয়ার অনুপ্রেরণা এই যে আমাদের পরিবারে কোন ডাক্তার নেই। সোয়েব বলেন “আমি জানতাম আমি কঠিন পড়াশোনা করে ডাক্তার হতে পারি। আমি কার্ডিওলজি অনুসরণ করতে চাই।”

    ১৮ বছর বয়সী এই তরুণ বলেছে যে সে দিনে ১৫ ঘন্টা পড়াশোনা করে, যার মধ্যে স্কুল এবং কোচিং ছাড়াও চার ঘন্টা স্ব-পড়াশোনা ও মূল্যায়ণ রয়েছে। “আমি নিশ্চিত করেছি যে আমি ইউটিউবে ভিডিও দেখা এবং গেম খেলতে কিছু সময় ব্যয় করেছি। এটা ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। আমি নিশ্চিত করেছি যে পড়াশোনার সময়, আমার একাগ্রতা ছিল পড়াশোনা এবং আর কিছুই না,” তিনি বলেন।

    আফতাব তার দ্বাদশ শ্রেণীর বোর্ড পরীক্ষায় ৯৬ শতাংশ নম্বর পেয়েছে। সে এও বলে যে এতটা নিখুঁত স্কোর নিয়ে মেডিকেল প্রবেশিকা পরীক্ষায় শীর্ষস্থান লাভ করবেন সে আশা সে করেনি।

    আফতাব দু বছরের কোচিং প্রোগ্রামের জন্য রাজস্থানের কোটায় চলে এসেছিলেন। তার মা এবং ১০ বছরের বোনও তার সাথে চলে গিয়েছিল। সোয়েব এইমস দিল্লি থেকে এমবিবিএস ডিগ্রী লাভ করতে চায়। মোট ৭,৭১,৫০০ জন প্রার্থী এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন যার জন্য ১৩.৬৬ লক্ষ প্রার্থী পরীক্ষা দিয়েছিলেন।

    সর্বোচ্চ যোগ্যতা অর্জনকারী প্রার্থীদের অধিকাংশ ত্রিপুরা (৮৮,৮৮৯) থেকে এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম অংশ মহারাষ্ট্র (৭৯.৯৭৪) থেকে NEET পাশ করেছে। কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল ‘নিশাঙ্ক’ টুইট করেছেন “ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। আমি সকল প্রার্থীকে অভিনন্দন জানাই যারা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন এবং ভবিষ্যতের জন্য তাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। এ বছর নতুন ডাক্তারদের দেওয়ার জন্য আমি এনটিএ-কে ধন্যবাদ জানাই। ‘পরীক্ষা’ সময় পরীক্ষা করা হয় এবং সমবায় যুক্তরাষ্ট্রীয়তার চেতনাও দৃশ্যমান হয়। এর জন্য আমি সকল মুখ্যমন্ত্রীকেও ধন্যবাদ জানাই।”

    মহামারীর পরিপ্রেক্ষিতে কঠোর সতর্কতার মধ্যে ১৩ সেপ্টেম্বর এনইইটি পরিচালিত হয়। এর আগে মহামারীর কারণে দুইবার পরীক্ষা স্থগিত করা হয় এবং এর পর সুপ্রীম কোর্টের নির্দেশে সরকার ১৩’ই সেপ্টেম্বর এই পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়।

    ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি মহামারীর পরিপ্রেক্ষিতে কঠোর আদর্শ অপারেটিং পদ্ধতি নির্ধারণ ও অনুসরণ করেছে, যার মধ্যে রয়েছে প্রতি রুমে প্রার্থীর সংখ্যা কমিয়ে আনা। যা আগের ২৪ থেকে নেমে ১২ হয়েছে ।

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    আগামী সোমবার খুলে যাচ্ছে রাজ্যের সব স্কুল

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : আগামী ২৭ জুন থেকে খুলে যাচ্ছে রাজ্যের সমস্ত সরকারি স্কুল। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু...

    পুজোর বাকি ১০০ দিন ! অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় বাঙালি

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : পুজোর বাকি ১০০ দিন। এখন থেকেই পুজোর প্ল্যানিং ? এখনও ঢের বাকি ! না,...

    দুর্বল মৌসুমী বায়ু ! অনিশ্চিত বর্ষা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : মৌসুমি বায়ু ঢুকলেও দক্ষিণবঙ্গে দুর্বল হয়ে পড়ল। আগামী কয়েকদিন বিশেষ বৃষ্টির সম্ভাবনা দেখছেন না...

    আরেকটা করোনা বিস্ফোরণের মুখে দাঁড়িয়ে রাজ্য ?

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : রাজ্যে ভয়াবহ আকার নিল করোনা। এক লাফে ৭০০ পার করল দৈনিক সংক্রমণ। বৃহস্পতিবার দৈনিক...

    এক অভিনব সাইকেল যাত্রা শুরু করলো সিভিক ভলেন্টিয়ার বিপ্লব দাস ।

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো :এক অভিনব সাইকেল যাত্রা শুরু করলো বিরাটির সিভিক ভলেন্টিয়ার বিপ্লব...