22 C
Kolkata
Tuesday, January 25, 2022
More

    সীমান্তের নির্দোষ মানুষ গুলোর জীবনে কাঁটাতারের যন্ত্রণা! এই যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দিতে রাজ্য সরকারকে অনুরোধ অপর্ণা সেনের

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরোঃ গত কয়েকদিন থেকেই উত্তাল ভারত বাংলাদেশ সীমান্ত। তবে এ ঘটনা নতুন কিছু নয়। সব সময় দুই দেশের সীমান্ত প্রহরীর গুলিতে কাঁটাতারের সীমারেখায় বন্দী মানুষ গুলির মৃত্যুর ঘটনা ঘটতেই থাকে। কারণ তাদের পায়ে পায়ে বিপদ! তাদের অপরাধ একটাই তারা দুই দেশের মাঝখানে অবস্থান করছে। দেশ ভাগ করতে গিয়ে তাদের জীবনের মাঝ বরাবর কাঁটাতার লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে!

    তাদের জীবনে একটি বড় প্রশ্ন, তাদের দেশ কোনটা? কার্যত তাদেরকে সব সময় নিজেদের পরিচয়পত্র পকেটে নিয়ে ঘুরতে হয়। প্রতি পায়ে প্রমাণ করতে হয় তারাও স্বাধীন মানুষ। সুবিধা বঞ্চিত এই মানুষগুলি সত্যিই অসহায়। আজ অপর্ণা সেন এই সীমান্তের মানুষগুলিকে নিয়ে মুখ খুলেছেন। তিনি বলেছেন, ‘কাঁটাতারে ঘেরা মানুষ গুলির অন্যায়টা কি? দুই দেশ ভাগ হয়েছে। দু দেশের মানুষ এপার ওপার হয়েছে।  কিন্তু এই মানুষ গুলোর জীবনে সুখ নেই।

    তাদের চাষের জমি, কাজের পুকুর, জঙ্গল, প্রয়োজন সব কিছুকে ঘিরে রয়েছে কাঁটাতারের পাহারা। তিনি বলেছেন এরাতো নির্দোষ এদের মুক্তি দেওয়া প্রয়োজন। যাতে তারাও তাদের প্রয়োজন মত স্বাভাবিক ভাবে জীবন যাপন করতে পারে। তিনি আরও বলেছেন এই মানুষগুলোকে নিয়ে কথা বলতে গেলে তার কথা বন্ধ হয়ে আসে। তিনি রাজ্য সরকারকে অনুরোধ করেছেন এদের বিষয়টি নিয়ে ভেবে দেখতে।’

    আরও পড়ুন : সুন্দর সম্পর্ককে সুন্দর রাখতেই এই সিদ্ধান্ত, জানালেন অনুপম – পিয়া

    যদিও সীমান্তে পাচারচক্র খুবই সক্রিয়। প্রায়ই গরু পাচারচক্রীদের সঙ্গে প্রহরীদের লড়াই বাঁধে। অনেক সময় তাদের মৃত্যুও হয়। গত শুক্রবার ভোরে কালীগঞ্জ উপজেলার মালগাড়া সীমান্তের ৯১৭ মেইন পিলারের ৫ নাম্বার সাব পিলারের কাছে এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে। বিএসএফ এর গুলিতে দুজন বাংলাদেশি ও একজন ভারতীয়র মৃত্যু হয়েছে। বিএসএফ জানিয়েছে তারা গরু পাচারের চেষ্টা করছিল। বিএসএফ তাদেরকে সতর্ক করলে, তারা জওয়ানদের উপর আক্রমণ করে। ফোর্স তখন নিজেদের আত্মরক্ষার্থে গুলি ছোঁড়ে।

    সীমান্তে মানবাধিকার নিয়ে কাজ করা কর্মীরা এই ঘটনার পেছনে অন্য কোনো উদ্দেশ্য থাকতে  বলে মনে করছেন। সীমান্তে মানবাধিকার নিয়ে কাজ করা সংগঠন, মাসুমের প্রধান কিরীটি রায় জানিয়েছেন “এই গুলিচালনা এমন একদিনে হল যেদিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভাল্লা কলকাতায় আসছেন বিএসএফ এবং সীমান্ত পরিকাঠামো নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সঙ্গে বৈঠক করতে।”

    প্রসঙ্গত বেশ কিছু দিন আগে ভারতের কেন্দ্র সরকার বিএসএফ এর ক্ষমতা বেশ কিছুটা বাড়িয়েছে। আগে তাদের এক্তিয়ার ছিল সীমান্ত থেকে ১৫ কিমি, যেটা এখন বাড়িয়ে করা হয়েছে ৫০ কিমি। যার ফলে পাঞ্জাব এবং পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকার বিরোধিতা করেছিল। তাদের মতে কেন্দ্র বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সকে রাজ্যের সীমান্তের মধ্যে এনে রাজ্যের উপর নজরদারি বাড়ানোর চেষ্টা করছে।
    লেখা – তানিয়া তুস সাবা।

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    ‘দুয়ারে সরকার’-র দিন ঘোষণা করল নবান্ন

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : করোনার দ্রুত বৃদ্ধির জন্য চলতি মাসে ‘দুয়ারে সরকার’-র দিন ঘোষণা করেও তা পিছিয়ে দেয়...

    পদ্মভূষণ সম্মান প্রত্যাখ্যান করলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : পদ্মভূষণ সম্মানে সম্মানিত হতে চলেছেন পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। সামাজিক ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের...

    ভোটের মুখে বড় ধাক্কা খেল কংগ্রেস , বিজেপিতে যোগ দিলেন গান্ধী পরিবার ঘনিষ্ট নেতা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : জল্পনাতে সিলমোহর। দল ছাড়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই BJP-তে যোগ দিলেন কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয়...

    দেশে একধাক্কায় অনেকটা কমল করোনা সংক্রমন , বাড়ছে সুস্থতা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : স্বস্তি জাগিয়ে একধাক্কায় অনেকটা কমল দেশের দৈনিক সংক্রমণ। গত কয়েকদিন ধরে নিম্নমুখী দেশের করোনা...

    কাপড়ের মাস্ক পুরোপুরি আটকাতে পারবে না করোনা সংক্রমন , বলছে বিশেষজ্ঞরা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : করোনা ঠেকাতে মাস্ক আবশ্যক। একথা প্রথম দিন থেকে বলে আসছেন বিশেষজ্ঞরা। উৎসবের দিনে বেশিরভাগ...