20 C
Kolkata
Monday, January 17, 2022
More

    স্টোইনিসের ক্যারিশ্মাতে প্রথম ম্যাচেই জয়ের সরণীতে দিল্লি

    দ্য ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো: মোহাম্মদ শামির আগুনে স্পেল, মায়াঙ্ক আগারওয়ালের লড়াকু ইনিংস কাজে এলো না। মার্কাস স্টোইনিসের অর্ধশতক আর শেষ ওভারের ক্যারিশ্মাতে প্রথম ম্যাচেই জয়ের সরণীতে দিল্লি।

    স্টোইনিসের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ২০ ওভারে ১৫৭/৮ সংগ্রহ করে দিল্লি। জবাবে পাঞ্জাবও থামে ১৫৭/৮-এ। ৮৯ রানের ইনিংস খেলেও পাঞ্জাবকে জেতাতে পারেননি মায়াঙ্ক। শেষ ওভারে বল হাতে চমক দেখিয়ে দিন শেষে হিরো স্টোইনিস। ২০তম ওভারে জয়ের জন্য ১৩ রান প্রয়োজন ছিল পাঞ্জাবের। কিন্তু স্টইনিসের করা ওই ওভারে ১২ রান তুলতে পারে পাঞ্জাব। ম্যাচ হয় টাই।

    সুপার ওভারে পাঞ্জাবের হয়ে ব্যাটিংয়ে নামেন অধিনায়ক কে এল রাহুল ও নিকোলাস পুরান। কাগিসো রাবাদার করা ওভারের প্রথম বলে ২ রান নেন রাহুল। কিন্তু পরের বলেই আউট। স্ট্রাইকিং প্রান্তে গিয়ে তৃতীয় বলে সরাসরি বোল্ড হন পুরান। তাতে পাঞ্জাবের সংগ্রহ দাঁড়ায় মাত্র ২ রান। আইপিএলের ইতিহাসে সুপার ওভারে এটাই সবচেয়ে কম সংগ্রহ। ৩ রানের টার্গেটটা শামির দুই বলেই পেরিয়ে যায় দিল্লি।

    টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামা দিল্লির ইনিংসের শুরুটা একেবারেই ভালো হয়নি। একটা সময় মনে হচ্ছিলো একশো রানের গন্ডি পেরোবে না রাজধানীর দল। মাত্র তেরো রানের মধ্যে টপ অর্ডার তিন ব্যাটসম্যান শিখর ধাওয়ান, পৃথ্বী শ ও সিমরন হেটমায়ার সাজঘরে। এখান থেকে ইনিংসের হাল ধরেন অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ার ও ঋষভ পন্থ।

    ভালোই এগোচ্ছিলেন দুজনে। চতুর্থ উইকেটের জন্য ৭৩ রানের জুটিও গড়ে তোলেন। কিন্তু দলীয় ৮৬ রানের মাথায় নবাগত রবি বিষ্ণোইয়ের বলে পন্থ বোল্ড হয়ে সাজ ঘরে ফিরতে না ফিরতেই, পরের ওভারেই শামির প্রথম বলে তুলে মারতে গিয়ে লং অনে ক্রিস জর্ডনের হাতে ধরা পড়েন আইয়ার। দলের অধিনায়ক হিসাবে তাঁর শট নির্বাচন প্রশ্নের মুখে পড়বে কোনো সন্দেহ নেই।

    দলীয় ৯৬ রানে যখন ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফিরছেন অক্ষর প্যাটেল (৬) তখন ১৬.১ ওভারে দিল্লির সংগ্রহ মাত্র ৯৬ রান। যখন মনে হচ্ছিলো ১২০ থেকে ১৩০ রানের গন্ডিতে দিল্লিকে বেঁধে ফেলবে পাঞ্জাব, তখনই বিধ্বংসী হয়ে ওঠেন বিরাট কোহলির প্রাক্তন সতীর্থ অজি অলরাউন্ডার মার্কাস স্টোইনিস। মাত্র ২১ বলে ৫৩ রানের দুর্ধর্ষ ইনিংস খেলেন তিনি (চার ৭, ছয় ৩)। যেখানে দিল্লির বাকি সব ব্যাটসম্যানরা মিলে মাত্র ৯ টি বাউন্ডারি মেরেছেন, স্টোইনিস একাই ১০ বার বাউন্ডারি পার করেন।

    এর মধ্যে শেষ ওভারে ৩০ রান খরচ করেন জর্ডন। ম্যাচ শেষে যেটা নিয়ে আক্ষেপ ঝরে পড়ে রাহুলের গলায়। তবে, তার আগে দুবাইয়ের স্পিন সহায়ক উইকেটেও ভারতীয় স্পিডস্টার শামি আগুন ঝরালেন। তার স্পেলটা ছিল এরকম, ৪-০-১৫-৩। এছাড়া শেল্ডন কট্রেলও (৪-০-২৪-২) যথেষ্ট ভালো বল করেন।

    ১৫৮ রানের লক্ষ্যে নেমে শুরুটা ভালো করেও ত্রিশ রানের মাথায় অধিনায়ক রাহুলের উইকেল হারানোর পরে তাসের ঘরের মতো ভেঙ্গে পড়ে পাঞ্জাবের ব্যাটিং লাইন আপ। মাত্র পাঁচ রানের ব্যবধানে আরও তিন উইকেটের পতন ঘটে, অর্থাৎ ৩৫-৪ হয়ে যায় পাঞ্জাব।

    তবে অন্য ওপেনার মায়াঙ্ক একটা দিক ধরে পাঞ্জাবকে লড়াইয়ে টিকিয়ে রাখেন। কিন্তু করুন নায়ার, পুরান ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের মতো ব্যর্থতার তালিকায় নাম লিখিয়ে সরফরাজ খানও দুটো চারের সাহায্যে ১২ রানের বেশি করতে পারেননি। বরং মায়াঙ্ককে যোগ্য সহায়তা করেন কৃষ্ণাপ্পা গৌথম ১০ বলে ২০ (চার ১, ছয় ১)।

    ম্যাচটা সারাক্ষণ পেন্ডুলামের মতো দুলতে থাকে। একবার পাঞ্জাবের দিকে তো পরক্ষনেই দিল্লির দিকে। কিন্তু দিনের শেষে পার্থক্য গড়ে দিলেন সেই স্টোইনিস (৩-০২৯-২)।

    শেষ ওভারে যখন বল করতে আসেন তিনি, তখন তেরো রান বাকি। প্রথম দুই বলে ওভার বাউন্ডারি এবং বাউন্ডারি খাওয়ার পরেও মায়াঙ্কের ছোট্ট একটা ভুলে ম্যাচ বেরিয়ে যায় পাঞ্জাবের হাত থেকে। ম্যাচের শেষ দুই বলে পাঞ্জাবের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিলো মাত্র এক রান কিন্তু প্রথমে মায়াঙ্ক আর তারপরে জর্ডনকে আউট করে ম্যাচ সুপার ওভারে নিয়ে যান স্টোইনিস। বিফলে যায় মায়াঙ্কের ৬০ বলে ৮৯ রানের (চার ৭, ছয় ৪) দুর্দান্ত ইনিংস।

    মরসুমের প্রথম সুপার ওভার ম্যাচে ‘সুপারস্টার’ হয়ে গেলেন রাবাদা (৪-০-২৯-২), মাত্র দু রান দিয়ে রাহুল ও পুরানকে ফিরিয়ে দেন এই প্রোটিয়া ফাস্ট বোলার। সুপার ওভারের নিয়মানুযায়ী দুটো উইকেট পড়লে আর ব্যাট করা যায় না।

    এখানে অধিনায়ক হিসাবে রাহুলের অদূরদর্শিতা দায়ী থাকবে। মায়াঙ্কের বদলে অফ ফর্মের পুরানকে নিয়ে কেন ব্যাট করতে নামলেন কে জানে! এর উত্তর হয়তো কারও কাছে নেই। কিন্তু দিনের শেষে চর্চার বিষয় হয়ে থাকবে ১৮ তম ওভারের তৃতীয় বলে শর্ট রান ছিল কিনা!

    যাইহোক, মরসুমের প্রথম সুপার ওভার তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করলেন অগনিত ক্রিকেট ভক্ত।

    দ্য ক্যালকাটা মিরর/মোস্তাফিজুর রহমান

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    মধ্যপ্রাচ্যে আবারও যুদ্ধের ইঙ্গিত !

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : আবারও মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধের দামামা। সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর রাজধানী আবু ধাবিতে জোড়া হামলা চালাল ইরান...

    শিশুদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কতটা ? দেখুন কি বলছে বিশেষজ্ঞরা

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : প্রাপ্তবয়স্কদের অধিকাংশের করোনা টিকা হলেও ভারতে শিশুদের পর্যন্ত করোনা টিকাদান হয়নি। ফলে তাদের মধ্যে...

    দেশে শীঘ্রই শুরু হচ্ছে ১২-১৪ বছর বয়সীদের টিকাকরণ !

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : দেশে শিশুদের টিকাদানের কর্মসূচি একধাপ এগোল। এবারে দেশে শুরু হতে চলেছে ১২ থেকে ১৪...

    দেশে নিম্নমুখী দৈনিক করোনা সংক্রমণ , চিন্তা বাড়াচ্ছে সক্রিয় রোগী

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : সোমবার দেশে সামান্য কমল কোভিডের দৈনিক সংক্রমণ। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের এদিনের বুলেটিন অনুযায়ী দেশে...

    শীত প্রেমীদের জন্য সুখবর ! ঝোড়ো ব্যাটিং করতে ফিরল শীত

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : পশ্চিমী ঝঞ্ঝা কেটে অবশেষে রোদ ঝলমলে আকাশ। এক ধাক্কায় তিন নামল কলকাতার তাপমাত্রা। পারদ পতনে...