21 C
Kolkata
Monday, January 24, 2022
More

    অলিম্পিক পদক জয়ের ২০ বছর, মালেশ্বরীর মনে হচ্ছে ‘‌যেন গতকালের ঘটনা’‌ -নির্মলকুমার সাহা

    সিডনি অলিম্পিকে তিনি ইতিহাস গড়েছিলেন। ভারতের প্রথম মহিলা হিসেবে জিতেছিলেন অলিম্পিক পদক। সেটা ২০০০ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর। যার ২০ বছর পূর্ণ হল শনিবার। কিন্তু পেছনে তাকিয়ে কর্নম মালেশ্বরীর মনে হচ্ছে, ‘‌যেন গতকালের ঘটনা। জাতীয় পতাকা নিয়ে সমর্থকদের উল্লাস, ভিক্‌ট্রি স্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে গলায় পদক পরা। তখন আমি একটা ঘোরের মধ্যে ছিলাম। দেশে ফিরে সংবর্ধনা আর সংবর্ধনা। আজ সকালে ঘুম থেকে উঠে সব মনে পড়ছিল। মনে হচ্ছিল, এ যেন কালকের ঘটনা। সব স্পষ্ট মনে আছে। মাঝে যে কুড়িটা বছর চলে গেল, বুঝতেই পারিনি।’‌

    সিডনি অলিম্পিকে ভারোত্তোলনে ৬৯ কেজি বিভাগে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন মালেশ্বরী। মোট ২৪০ কেজি তুলে। সোনা জিতেছিলেন চীনের লিন ওয়েনিং। তিনি তুলেছিলেন ২৪২.‌৫ কেজি। রুপো হাঙ্গেরির এরজেবেট মারকুসের। তিনিও তুলেছিলেন ২৪২.‌৫ কেজি। লিন ওয়েনিংয়ের বডি ওয়েট কম থাকায় সোনা জিতেছিলেন। হরিয়ানার যমুনানগরের শ্বশুর বাড়ি থেকে ফোনে মালেশ্বরী বলছিলেন, ‘আজ ‌সকাল থেকেই অনেক ফোন এসেছে। অনেকে মেসেজ পাঠিয়েছেন। এতদিন পরও সবাই আমাকে মনে রেখেছে। এটা ভালই লাগছে।’‌

    উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে গড়েছেন কর্নম মালেশ্বরী ফাউন্ডেশন। যমুনানগরেই ওই ফাউন্ডেশনের ওয়েটলিফটিং ট্রেনিং সেন্টার। এখন করোনাকালের শুরু থেকেই ট্রেনিং বন্ধ রেখেছিলেন। অনলাইনে কিছু নির্দেশ দিতেন। এখন আবার আস্তে আস্তে শুরু করেছেন। বললেন, ‘‌দূরের ট্রেনিদের আসতে বারণ করেছি। কাছাকাছি যারা থাকে, তাদের কয়েকজন এখন আসছে। নিয়ম মেনে ওদের ট্রেনিং চলছে।’‌ ওই শিক্ষার্থীরাও আজ ওদের ম্যাডামের অলিম্পিক পদক জয়ের ২০ বছর পূর্তির দিনটি পালন করেছে।

    কর্নম মালেশ্বরী এখন

    কীভাবে?‌ মালেশ্বরী হাসতে হাসতে বললেন, ‘‌এখন তো অল্প কয়েকজন আসছে। ওরা কেক এনেছিল। কেক কাটা হল। আমার কাছ থেকে অলিম্পিক মেডেল জেতার গল্প শুনতে চাইল। এই আর কী। আমি যখন অলিম্পিক মেডেল জিতেছি ওদের কয়েকজনের জন্মই হয়নি। কারও কারও বয়স চার-‌পাঁচ বছর। ওদেরও সেদিনের সব মনে থাকার কথা নয়।’‌

    ইতিহাস গড়া নায়িকা ওদের বলেছেন, ‘‌টার্গেটটা সবসময় অনেক উঁচুতে রাখতে হয়। আমি যখন খেলাধুলো শুরু করি, তখন থেকেই লক্ষ্য ছিল অলিম্পিক মেডেল। কিন্তু মেডেল জিতব বললেই তো আর জেতা যায় না। কঠোর পরিশ্রম করতে হয়। সেই পরিশ্রমের ফল পেয়েছিলাম। ওদেরও বললাম, উঁচুতে তাকাও, পরিশ্রম করো।’‌

    এছাড়া তিনি দিনের বাকি সময় বাড়িতেই ছিলেন। সংবাদ মাধ্যমে দিয়েছেন একাধিক সাক্ষাৎকার। সব মেসেজের জবাব দিয়েছেন। জানালেন, বাড়িতেও স্বামী ও পুত্রদের উদ্যোগে কেক কাটা হয়েছে। বললেন, ‘‌সব মিলিয়ে দিনটা মন্দ কাটল না।’‌

    Related Posts

    Comments

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    সেরা পছন্দ

    দেশে নিম্নমুখী করোনা সংক্রমন , উদ্বেগ বাড়াচ্ছে গোষ্ঠী সংক্রমন

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : চোখ রাঙাচ্ছে করোনার নয়া স্ট্রেন ওমিক্রন। তারই মধ্যে সামান্য স্বস্তির খবর শোনাল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক।...

    আজও বৃষ্টির ভ্রুকুটি ! সপ্তাহ শেষে কামব্যাক করবে শীত

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : রাজ্যে বৃষ্টির ভ্রুকুটি। রবিবার শহর কলকাতার আকাশ ছিল মেঘলা। বৃষ্টিপাত হয়েছিল একাধিক জেলাতে। প্রশ্ন...

    নয়াদিল্লির ইন্ডিয়া গেটে নেতাজির হলোগ্রাম স্ট্যাচুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : অবশেষ প্রতীক্ষার অবসান। ভারতের রাজধানী দিল্লির ইন্ডিয়া গেটে নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর উজ্জ্বল উপস্থিতি। ১২৫...

    করোনার থাবা ভারতীয় মহিলা ফুটবল দলে , বাতিল AFC এশিয়ান কাপের ম্যাচ

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : করোনার থাবা এবার মহিলাদের AFC এশিয়ান কাপে। ভারতীয় ফুটবল শিবিরে করোনার কবলে একাধিক ফুটবলার।...

    স্বস্তি দিয়ে রাজ্যে নিম্নমুখী করোনা সংক্রমন , বাড়ছে সুস্থতার হার

    দ্যা ক্যালকাটা মিরর ব্যুরো : ধীরে ধীরে সুস্থ হচ্ছে বাংলা। কমছে দৈনিক সংক্রমণ। রাজ্যে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন...